হাওয়া বাংলা মুভি ডাউনলোড নকলের অভিযোগ | Hawa Bangla Full Movie download

 হাওয়া বাংলা মুভি ডাউনলোড নকলের অভিযোগ | Hawa Bangla Full Movie download 

"হাওয়া" সিনেমার ট্রেইলার আর "সাদা কালা" গান দেখেই তো বুঝলাম একদল অশিক্ষিত, মূর্খ, গাজাখোর, নেশাখোর,  মদখোর জেলে- মাঝি-মল্লারদেরদের জীবন নিয়েই নির্মিত হয়েছে এই সিনেমা।



 এই শ্রেণীর লোকজনের জীবনী মানেই নোংরা লাইফ স্টাইল ; জাস্ট চঞ্চল, রাজদের লুক, গেটাপ দেখেন ; কি বিশ্রী! কি জঘন্য! দেখলেই বমি আসার মত , এদের কথোপকথন মানেই অশ্লীল গালাগালি বিশ্বাস না হয় সিনেমাটা আজকে যারা দেখেছে তাদের কাছে জেনে নিয়েন কি পরিমাণ অশ্লীল বাক্যবিনিময় হয়েছে যা শুনে অনেকের কানে তালা লেগে যেতে বাধ্য এবং যা কিনা পরিবার নিয়ে দেখা বা শোনার উপযোগী নয়। , এ কারনেই ব্যক্তিগতভাবে এই সিনেমা দেখার কোন ইচ্ছে অনেক রুচিশীল দর্শকের হবে না৷ অবশ্য কিছু বিকৃত রুচিশীল দর্শক সবকিছুতেই নিজেদের মানিয়ে নেয় তাদের হিসাব আলাদা। 


অশ্লীল কটুবাক্যে পরিপূর্ণ সিনেমা দেখে কেউ সমালোচনা করলে বা একটু আধটু গালিগালাজ করলেও সেটা হজম করা উচিত কেননা সিনেমাহলে শুনে আসা গালির বাস্তবিক প্রয়োগ কিছু না করলেই যে নয়৷ আপনারা তো অনেকেই আছেন যারা সিনেমাহলে শিখতে যান, তো সেই সিনেমাহল থেকে কিছু গালি শিখে এসে যদি কেউ আপনাদের উপরেই সেটার প্রয়োগ ঘটায় তাহলে সেটাতে আপত্তি থাকবে কেন? 


আমার মতে সমাজের এসব নিম্নশ্রেণীর লোকজনদের নিয়ে হাসি-তামাসা না করে উচুতলার সুশীল,  রুচিশীল শ্রেণীর লোকজনের জীবনকাহিনী নিয়ে বেশি বেশি রুচিশীল সিনেমা বানানো উচিত, এতে করে আশা করি সিনেপ্লেক্সের ৭০ ভাগ/৮০ ভাগ শো নিয়ে আর গর্ব করতে হবেনা, পুরো ১০০ ভাগ শো-ই হাউজফুল যাবে।



গাজীপুর চৌরাস্তা উল্কা সিনামা হলে"হাওয়া" চলছে। পাপের ধরছিল তাই বাবার কাছে টাকা নিয়ে বান্ধবীদের সাথে গিয়ে ত আমি অবাক।অমা এইটা বলে পরবার নিয়ে দেখা যাবে।এই সিনেমা দেখে আমি ত আমার বান্ধবীদের দিকেও তাকাইবার পাচ্ছি না।

এত্ত পরিমান স্লেজিং যা ব্যাচেলর পয়েন্টও নাই।

গালির ডাইস কি?ডিপজলকেউ হার মানাবে।

আর অই একটা মেয়েকে নিয়ে সবার এত্তো সুড়সুড়ি 😡।

আর এটা নাটক নাকি মুভি, হরর নাকি মিস্ট্রি এটাই বুঝতে আমার শেষ পর্যন্ত লেগেছে।রাগ পেয়ে সম্পুর্ন টা না দেখে এসে পড়েছি।

আমরা মেয়ে ছিলাম বলে উচ্চস্বরে গালি দিতে পারি নাই।

আসার সময় অটোমেটিক সে গালিগুলি মুখস্থ হয়ে গিয়েছে।

মনে হচ্ছে মুভির এটাই ম্যাসেজ ছিল।

তবে অভিনয় ভালো ছিল।


দয়া করে যারা বানোয়াট গল্প পছন্দ করেনা, তাদের উদ্দেশ্যে বলব,তারা নিজের বাপের টাকা আমার মতো নষ্ট করিয়েন না।

পরে বাড়ি আসার পর দেখি সাইবার ৭১ এর সিও আব্দুল্লাহ আল জাবের ভাই এইটা নিয়ে রিভিউ দিছে।

আমিও সেই শিখা গালি তার উপর প্রয়োগ করলাম।আর বললাম বেট্টা আগে বললে আমার ৫০০ টাকা কি নষ্ট হয়তো।


 নকলের অপবাদ তুলেছেন তারা ‘হাওয়া’ না দেখেই এসব বলছেন উল্লেখ করে সুমন বলেন, ‘যারা এই দাবি তুলেছেন মনে হয় তারা আমার সিনেমাটি দেখেননি। তাদের বলব, আপনারা আগে আমার সিনেমাটি দেখে, মিলিয়ে তারপর এরকম দাবি তুলুন।’

এরপর তিনি চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়ে বলেন, ‘আমি আগে থেকেই জোর গলায় বলে আসছি এটা এ অঞ্চলের গল্প। এখনও বলব এটা আমাদের ছবি। আসলে এখানে এত নকল ছবি হচ্ছে যে দর্শকের মাথায় সবসময় এই ব্যাপারটা থাকে। যারা নকল বলছেন তাদের প্রতি আমার আহ্বান, তারা দুটি সিনেমা পাশাপাশি রেখে দেখুক।’

সবশেষে ‘সী ফগ’-এর সঙ্গে ‘হাওয়া’র গল্পের কোনো মিল নেই উল্লেখ করে এই নির্মাতা বলেন, ‘ছবি দুটির শুটিং সাগরে হয়েছে বলে অনেকে হয়ত এরকম ভাবছেন। তাদের ধারণা ভুল। সাগরে দৃশ্যধারণ করা হলেই তো আর সিনেমা এক হয় না। পৃথিবীতে সমুদ্রের গল্পে নির্মিত অসংখ্য চলচ্চিত্র আছে। আর  যে সিনেমাটির কথা বলা হচ্ছে সেটা মানব পাচারের গল্পে নির্মিত হয়েছে। আমার সিনেমার সঙ্গে ওই ছবিটির কোনো মিল নেই। এটা খুবই হাস্যকর।’


যারা হাওয়ার হাওয়ায়  ভাসছেন তাদের জন্য একটা দুঃসংবাদ "


হাওয়া মুভিটা কোরিয়ান মুভি Sea Fog এর ব বাংলা ভার্সন "


আজ থেকে আরো সাত বছর পুর্বে মুক্তি পাওয়া Sea Fog থেকে মেরে দেওয়া হয়েছে এর গল্প " তিতা হলেও সত্তি এটাই,


হিসাব না মিল্লে দুইটা গালি দিয়া যাইয়েন ধন্যবাদ 🙂


SEA FOG MOVIE STORY: 

69 টন মাছ ধরার জাহাজ জিওনজিনহো তার ক্রুরা যতটা আশা করেছিল ততটা মাছ ধরতে ব্যর্থ হয়েছে। আরও অর্থোপার্জনের জন্য, ক্রুরা ত্রিশজন অবৈধ অভিবাসীকে কোরিয়ায় পাচার করার সিদ্ধান্ত নেয়। কিন্তু জিওনজিনহো যখন তার ফিরতি যাত্রায় প্রচণ্ড কুয়াশা, বৃষ্টি এবং ঢেউয়ের মুখোমুখি হয়, তখন দক্ষিণ কোরিয়ার মেরিটাইম পুলিশের একটি জাহাজের দ্বারা তাড়া করা হয় তখন জিনিসগুলি পরিকল্পনা অনুযায়ী যায় না। ক্যাপ্টেনের নির্দেশে, বেশ কয়েকজন ক্রু সদস্য অবৈধ অভিবাসীদের মাছ ধরার ট্যাঙ্কের ভিতরে লুকিয়ে রাখে, যেখানে তারা শ্বাসরোধে মৃত্যুর ঝুঁকিতে থাকে। বিশৃঙ্খলার মধ্যে, সর্বকনিষ্ঠ ক্রু সদস্য ডং-সিক একজন তরুণ মহিলা অভিবাসীকে রক্ষা করার চেষ্টা করেন যার সাথে তিনি প্রেমে পড়েছিলেন।


HAWA MOVIE STORY: 

গভীর সমুদ্রে গন্তব্যহীন একটি ফিশিং ট্রলারে আটকে পড়া আটজন মাঝি মাল্লা এবং এক রহস্যময় বেদেনীকে ঘিরে চলচ্চিত্রটির কাহিনী আবর্তিত হয়েছে। চলচ্চিত্রটির গল্প মূলত একালের রূপকথা নির্ভর।


দুইটা ছবির গল্প বলার ধরন ও আলাদা, শুধু মিল আছে দুইটা ছবির শুটিং সাগরে হয়েছে, এতে করে তো আর কপি হয়না, গল্প বলার ধরন তো আলাদা। 

আমাদের বাঙালির দের সমস্যা কোথায় জানেন, আমরা কখনো আমাদের কিছু নিয়ে গর্ব করতে পারি না৷ একদল লোক আছে যারা হাওয়া সিনেমা না দেখে এই সব ফেইক তথ্য শেয়ার করছে, শুধুমাত্র দুইটার পোস্টার দেখে। আরে বোকারা Sea Fog আর Hawa এর ট্রেলার দেখলেই তো বলা যায়, এইটা কপি না। অযথা এইসব ফেইক নিউজ ছড়াবেন না৷ এমনিতেই আমাদের ইন্ডাস্ট্রি ছোট, ভালো কিছু হতে দিন৷ 


বাংলা সিনেমার জয় হোক❤





Attention : – Pls Visit Our সকল মুভি ডাউনলোড করুুন আমাদের মুভি ডাউনলোড ওয়েবসাইট থেকে and মুভি ডাউনলোড করতে না পারলে জয়েন করুুন টেলিগ্রামে এবং ডাউনলোড করার পিন ভিডিও দেখুন। Join Telegram Group

0 Response to "হাওয়া বাংলা মুভি ডাউনলোড নকলের অভিযোগ | Hawa Bangla Full Movie download "

Post a Comment